মিয়ানমারে বিক্ষোভকারীদের মরদেহ ফেরত দিতে সামরিক বাহিনীর চার্জ ৮৫ ডলার

মিয়ানমারে জান্তাবিরোধী বিক্ষোভে নিহতদের মরদেহ হস্তান্তর করতে পরিবার ও স্বজনদের কাছ থেকে চার্জ হিসেবে সামরিক বাহিনী ৮৫ ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৭ হাজার ১৯০ টাকা) করে নিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আজ সোমবার (১২ এপ্রিল) সংশ্লিষ্ট ও প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে এ খবর প্রকাশ করেছে মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন।

রাজনৈতিক বন্দিদের পক্ষে আইনজীবী সহায়তা সহায়তা সমিতি (এএপিপি) জানিয়েছে, বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে গত শুক্রবার বাগো শহরে রাতভর অভিযান চালিয়েছে নিরাপত্তা বাহিনী। এ সময় তাদের নির্বিচার গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন কমপক্ষে ৮২ জন। ভুক্তভোগী পরিবার বা স্থানীয়রা নিহত সবার মরদেহ সংগ্রহ করতে পারেনি। মরদেহগুলো বেশিরভাগই নিরাপত্তা বাহিনী নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ। বিক্ষোভকারীদের দমনে জান্তা বাহিনী বন্দুকের পাশাপাশি মেশিনগানের গুলি, গ্রেনেড এবং মর্টারের ব্যবহার করেছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক প্রত্যক্ষদর্শী সিএনএনকে জানান, শুক্রবারের অভিযানের পর থেকে অনেক বাসিন্দা আশপাশের গ্রামে পালিয়েছে। এলাকার ইন্টারনেট সংযোগও কেটে দেওয়া হয়েছে এবং নিরাপত্তা বাহিনী বাসিন্দাদের আটকে করতে এখনো অনুসন্ধান চালাচ্ছে।

বাগো ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্ট ইউনিয়নের ফেসবুক পোস্ট অনুসারে, শুক্রবারের অভিযানে যারা নিহত হয়েছেন তাদের মরদেহগুলো হস্তান্তর করতে পরিবার ও স্বজনদের কাছ থেকে ৮৫ ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৭ হাজার ১৯০ টাকা) করে নিচ্ছে নিরাপত্তা বাহিনী। রেডিও ফ্রি এশিয়াস বার্মিজ সার্ভিসের প্রতিবেদনের সাথে এ তথ্য মিলে। তবে সিএনএন স্বাধীনভাবে এই প্রতিবেদনটি এখন পর্যন্ত যাচাই করতে পারেনি।

এএপিপির তথ্যমতে, গত ১ ফেব্রুয়ারি জান্তা সরকার ক্ষমতা দখল করার পর থেকে মিয়ানমারে চলমান বিক্ষোভে এখন অবধি ৭০০ এর অধিক মানুষ নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে নারী ও শিশুও আছে। বন্দি করা হয়েছে ৩ হাজারের অধিক বিক্ষোভকারীকে। আন্দোলন থামাতে জান্তা সরকার পুলিশ ও সেনাবাহিনীকে লেলিয়ে দিয়েছে।

বে অব বেঙ্গল নিউজ / BAY OF BENGAL NEWS