প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যে যোগ দেবেন হ্যারি

গত শুক্রবার প্রয়াত হয়েছেন ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী প্রিন্স ফিলিপ। আগামী সপ্তাহে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে। করোনা পরিস্থিতির কারণে মাত্র ৩০ জন থাকবেন সেই অনুষ্ঠানে। সদ্য ব্রিটেনের রাজ পরিবার থেকে সরে যাওয়া প্রিন্স হ্যারিও থাকবেন সেই অনুষ্ঠানে। তবে সেই অনুষ্ঠানে থাকছেন না তার স্ত্রী মেগান।
প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যে যোগ দেবেন হ্যারি

এবিষয়ে বাকিংহাম প্যালেসের তরফে জানানো হয়েছে, হ্যারির স্ত্রী ছাড়াও ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনও অংশ নিচ্ছেন না ফিলিপের শেষকৃত্যে। কিন্তু কেন তারা থাকছেন না ওই অনুষ্ঠানে? এর পিছনে রয়েছে ব্রিটেনে বাড়তে থাকা করোনা সংক্রমণ। তাই সতর্কতার কারণেই বরিস ওই অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন না। এদিকে মেগান অন্তঃসত্ত্বা। এই অবস্থায় আমেরিকা থেকে এত দূরের সফরে অংশ নেয়া তার পক্ষে উচিত হবে না। সেই কারণেই হ্যারি শেষকৃত্যে যোগ দিলেও চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে নিয়ে মেগান থাকছেন আমেরিকাতেই।

উল্লেখ্য, রাজ পরিবার থেকে সরে যাওয়ার পর মেগান সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বাকিংহাম প্যালেসকে নানা অভিযোগে বিদ্ধ করেছিলেন। তার দাবি ছিল, রাজকুমার হ্যারি ও তার প্রথম সন্তানের জন্মের আগে তার গায়ের রং কী হবে তা নিয়ে চলত আলোচনা। মানসিক সমস্যায় ভুগতে থাকা মেগানের দিকে রাজ পরিবারের কেউই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেননি বলেও অভিযোগ করেছিলেন তিনি। তাকে সমর্থন করেছিলেন হ্যারিও।

প্রসঙ্গত, ডিউক এবং ডাচেস অব সাসেক্স হিসাবে গত বছরের মার্চেই রাজপরিবার ত্যাগ করে উত্তর আমেরিকায় চলে যান হ্যারি-মেগান। ফলে জল্পনা ছিল, ফিলিপের মৃত্যুর পরে তার শেষকৃত্যে তারা যোগ দেবেন কিনা তা নিয়ে। অবশেষে সেই জল্পনার অবসান হলো।

কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন নবতিপর যুবরাজ ফিলিপ। হৃদযন্ত্রের সমস্যা ও সংক্রমণ নিয়ে তিনি ভর্তি হয়েছিলেন হাসপাতালে। একমাস চিকিৎসা চলার পরে ফিরেও এসেছিলেন। সেই সময় সকলের উদ্দেশে হাত নেড়ে গাড়িতে করে হাসপাতাল থেকে ফিরতে দেখা গিয়েছিল তাকে। শেষ পর্যন্ত শুক্রবার প্রয়াত হন ৯৯ বছরের প্রিন্স ফিলিপ। সূত্র: নিউইয়র্ক টাইমস।

বে অব বেঙ্গল নিউজ / BAY OF BENGAL NEWS