চকবাজার থানা ছাত্রলীগের পালটা কমিটিতে সাজিদ সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক হৃদয়

চট্টগ্রামঃঃ চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ’র অন্তর্গত চকবাজার থানা ছাত্রলীগের বিদ্রোহী কমিটি ঘোষণা করেছেন মহানগর ছাত্রলীগের অপর একটি পক্ষ।
চকবাজার থানা ছাত্রলীগের পালটা কমিটিতে সাজিদ সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক হৃদয়
চকবাজার থানা ছাত্রলীগের পালটা কমিটিতে সাজিদ সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক হৃদয়

১৬ফেব্রুয়ারী (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের প্যাডে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মিথুন মল্লিক ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওয়াহেদ রাসেল স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সাজিদ আহমেদ কে সভাপতি এবং ইয়াজ উদ্দিন হৃদয় কে সাধারণ সম্পাদক করে ২৮ সদস্য বিশিষ্ট চকবাজার থানা ছাত্রলীগের আংশিক কমিটি ১ মাসের জন্য ঘোষণা করা হয়েছে। উক্ত প্যাডে চকবাজার থানা ছাত্রলীগকে এক মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ করে কমিটি জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়।

পাল্টা কমিটি’র বিষয়ে ইয়াজ উদ্দিন হৃদয়ের কাছে জানতে চাইলে বে অব বেঙ্গল নিউজকে বলেন, ‘এই কমিটির মাধ্যমে তৃনমূলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করা হয়েছে। মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে রাতের আঁধারে বিএনপি জামাত পরিবারের সদস্য, অছাত্র, চিহ্নিত অপরাধীদের নিয়ে কমিটি গঠন করে ছাত্রলীগের ইতিহাসকে কলুষিত করেছে বর্তমান সভাপয়ি ইমু ও দস্তগীর। যারা দীর্ঘদিন ধরে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে ছাত্রলীগের রাজনীতি করে আসছে তাদের উপেক্ষা করে কমিটি গঠন করায় আমরা বর্তমান নগরের সভাপতি ও সেক্রেটারির কমিটি কে প্রত্যাখান করেছি। এছাড়া নগরের বর্তমান কমিটি মেয়াদ উত্তীর্ণ আর বিবাহিত ছাত্রলীগ নেতা পরিচয় দেয়া ব্যক্তিতে ভরপুর। এই কমিটির বিলুপ্তি নাহলে চট্টগ্রামের ছাত্রলীগের রাজনীতি নিয়ে আমি সঙ্কিত। এছাড়া চকবাজার ওয়ার্ডে তারা যে কমিটি ঘোষণা করেছে সেখানে যে সাধারণ সম্পাদক হয়েছে, সে ছাত্রদলের কর্মী। নিশ্চয় নিজস্ব স্বার্থ হাসিলের লক্ষ্যে নগরের অবৈধ কমিটি ছাত্রদল দিয়ে ছাত্রলীগ গঠনের অনৈতিক চিন্তা করছে।

চকবাজার থানা ছাত্রলীগের পালটা কমিটিতে সাজিদ সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক হৃদয়

উল্লেখ্য গত বধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২ টায় চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু ও সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীত স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জাহেদুল ইসলাম ইরাক চৌধুরীকে সভাপতি ও জি এম তৌসিফ কে সাধারণ সম্পাদক করে এক বছরের জন্য কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়।

এরপর থেকেই একটি পক্ষ এই কমিটির বিরুদ্ধে অনুপ্রবেশ ও অনৈতিক লেনদেনের অভিযোগ করে প্রতিহত করার ঘোষণা দেয়। এছাড়া বর্তমান কমিটি মেয়াদ উত্তীর্ন হওয়ায় দীর্ঘদিন ধরে তারা আন্দোলন করে আসছেন। পক্ষটি নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দিনের অনুসারী।

bay of bengal news / বে অব বেঙ্গল নিউজ