(ভিডিও সহ) চট্টগ্রাম ৩নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থীকে প্রকাশ্যে প্রহারের ঘোষণা কথিত আওয়ামী লীগ নেতার

(ভিডিও সহ) চট্টগ্রাম ৩নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থীকে প্রকাশ্যে প্রহারের ঘোষণা কথিত আওয়ামী লীগ নেতার
২৭ জানুয়ারী আসন্ন চসিক নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী কফিল উদ্দীন কে প্রহারের হুশিয়ারী দিয়েছেন আব্দুল্লাহ আল মামুন নামের কথিত আওয়ামী লীগ নেতা।আরেক কাউন্সিলর প্রার্থী শফিকুল ইসলামের পক্ষে নির্বাচনী সমাবেশের বক্তব্যে তিনি প্রকাশ্যে এই হুশিয়ারী দেন।
(ভিডিও সহ) চট্টগ্রাম ৩নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থীকে প্রকাশ্যে প্রহারের ঘোষণা কথিত আওয়ামী লীগ নেতার
স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ।নেতা আব্দুল্লাহ আল মামুন

আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘আমরা কাপুরুষ নই। কফিলকে পাঁচলাইশে নেড়ি কুকুরের মতো দৌড়িয়ে দৌড়িয়ে মারবো। ভিডিও করো। যেখানে মন চায় দাও। পুলিশকে জানাও। বুক ফুলিয়ে বলছি। সাহস থাকলে সামনে এসে কথা বল বেডা।’

তিনি আরো বলেন, ‘কুকুরের লেজ কখনও সোজা হয় না। সে (কাউন্সিলর প্রার্থী কফিল) এখন সুন্দর সুন্দর প্রতিশ্রুতি দিলেও নির্বাচনের পর সব ভুলে যাবে। পাঁচ বছরে কোন কাজ করে নাই। রাতের বেলা মদ খাওয়ার অভ্যাস তার। ঠিক সময়ে ওয়ার্ড অফিসে পর্যন্ত আসতো না। সত্তর বছরের বৃদ্ধ থেকে শুরু করে শিশু, নারী সকলের সাথেই খারাপ আচরণ করতো।’

ইদে মিলাদুন্নবীর ভাতের পাত্রে লাথি মারার অভিযোগ করে কাউন্সিলর প্রার্থী কফিলকে ফেরাউনের চেয়েও খারাপ বলে বক্তব্য রাখেন মামুন। তিনি বলেন, ‘করোনাকালে কফিল ঘরের কোণে লুকিয়ে ছিলো। আমরা মানুষের পাশে ছিলাম। নিজে করোনা আক্রান্ত হয়েছি। তারপরও জীবনের পরোয়া না করে এলাকাবাসীর সুখে দুঃখে ছুটে গিয়েছি। মাথায় কাফনের কাপড় বেঁধে নেমেছি। বহুবার হামলার শিকার হয়েছি। আজকে থেকে বিশ বছর আগে ১৯৯৯ সালে গার্লস স্কুলের সামনে ছাত্রলীগের চীকা মারার সময়ে হামলার শিকার হয়েছিলাম। সেদিন মরে যেতে পারতাম। জন্মেছি যখন মরতে হবে। মৃত্যুকে পরোয়া করি না। পাঁচলাইশের উন্নয়নের স্বার্থে যদি মৃত্যুও আসে মামুন সেটাকে ভয় করে না।’

এসময় স্বতন্ত্র কাউন্সিলর প্রার্থী শফিকুল ইসলামের পক্ষে ভোট চেয়ে মামুন বলেন, ‘ আপনাদের প্রতি অনুরোধ থাকবে ২৭ তারিখ মিস্টি কুমড়া মার্কায় শফিকুল ইসলাম কে ভোট দিয়ে পাঁচলাইশের ভাগ্য পরিবর্তন করবেন। আপনারা সাহস হারাবেন না। আমাদের কোন কর্মী সমর্থকের গায়ে যদি একটি আঁচড়ও লাগে আমাদের এক হাজার সমর্থক এসে তার প্রতিবাদ জানাবে। ভয় পাওয়ার কোন কারণ নেই। সবার প্রতি আহ্বান ২৭ তারিখ অবশ্যই ভোট কেন্দ্রে যাবেন। আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম স্বতন্ত্র প্রার্থী। তাকে আপনাদের মূল্যবান ভোট প্রদান করবেন। সেই সাথে জননেত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত নৌকার প্রার্থীকে ভোট প্রদানের জন্য আপনাদের কাছে বিনীত অনুরোধ জানাই।’

প্রসঙ্গত, আব্দুল্লাহ আল মামুন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত রয়েছেন। নব্বইয়ের দশকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত থাকলেও দীর্ঘদিন তিনি দুবাই ছিলেন। দেশে ফিরে তিনি আবার অক্সিজেন এলাকার স্থানীয় রাজনীতির সাথে যুক্ত করেছেন নিজেকে। পরিচয় দেন তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা হিসেবে। অক্সিজেন এলাকায় মামুনের সক্রিয় গ্রুপ রয়েছে। সরকার দলীয় পরিচয়কে ব্যবহার করে এলাকায় চাঁদাবাজি, দখল, আধিপত্য বিস্তারসহ নানা ধরনের অপকর্মের সাথে মামুনের কর্মী সমর্থকেরা জড়িত বলে অভিযোগ রয়েছে।

এ ব্যাপারে কফিল উদ্দীন এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বে অফ বেঙ্গল নিউজকে বলেন, “আমি কারো সাথে ঝগড়া করতে আসি নাই। নির্বাচন করতে এসেছি। কে কি বললো তা আমি কেয়ার করি না। পাগলে অনেক কথা বলবে, ছাগলে অনেক ঘাস খাবে। এসবের উত্তর দিতে গেলে তো খুনোখুনি হবে। আমি শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন চাই। গণমানুষ আমাদের মূল্যায়ন করবে।”

এম সি এম / বে অব বেঙ্গল নিউজ / bay of bengal news