বাংলাদেশি রোহিঙ্গা কমিউনিটির মানববন্ধন শাহবাগে

ঢাকাঃ বাংলাদেশ প্রতিদিন অংসান  সুচি মায়ানমার ও রাখাইনের অশান্তির জন্য দায়ী করে অংসান সুচির ছবি পায়ে মাড়িয়ে ও জুতা দিয়ে মেরে প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশের রাখাইনরা।  মিয়ানমারের আরাকান প্রদেশ শুধু সংখ্যালঘু রোহিঙ্গারা নয় সামরিক জান্তা বাহিনীর নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন সংখ্যাগুরু রাখাইন সম্প্রদায় এর জনগণ।

বাংলাদেশি রোহিঙ্গা কমিউনিটির মানববন্ধন শাহবাগে
বাংলাদেশি রোহিঙ্গা কমিউনিটির মানববন্ধন শাহবাগে

যার প্রেক্ষিতে মিয়ানমার সরকার সরকারকে ভাইরাস আখ্যায়িত করে আরাকানে গণহত্যার প্রতিবাদে   ঢাকার শাহবাগে মানববন্ধন সমাবেশ করেছে রাখাইন কমিউনিটি অফ বাংলাদেশ।  কক্সবাজার বান্দরবান রাঙ্গামাটি পটুয়াখালী সারা দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে রাখাইন সম্প্রদায় এর প্রায় সহস্রাধিক মানুষ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে।

 সমাবেশে বক্তারা বর্ণনা করেন  আরাকানের সেনাবাহিনীর চলা নিসংসতা। 

মানববন্ধনে উপস্থিত একজন বলেন,  আমরা দেখতে পাচ্ছি ঘুমন্ত অবস্থায় মা ও শিশুকে গুলি করে মেরে ফেলা হচ্ছে। স্কুলে যাওয়া ছাত্রছাত্রীকে বাধা দেওয়া হচ্ছে ও গুলি করে মেরে ফেলা হচ্ছে।  আমরা বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে এর তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই।

রাখাইন সম্প্রদায়ের আর একজন বাংলাদেশের নাগরিক যিনি একজন ছাত্রী।  তিনি উক্ত মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন এবং তিনি বলেন,  আমরা দেখতে পাচ্ছি প্লেইন দিয়ে উপর থেকে বোমা ফেলা হচ্ছে অনেকগুলো মানুষ মারা যাচ্ছে। রাখাইনে সেনাবাহিনী নারীদের ধর্ষণ করছে বাচ্চাদের গুলি করে মেরে ফেলেছে। যা খুবই নিশংস হত্যাকাণ্ড। আমরা আন্তর্জাতিক মহলের কাছে এর সুষ্ঠু বিচার চাই তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

বিশ্ববাসী এবং জাতিসংঘের কাছে আয়োজকদের দাবি এরূপ নিশংস হত্যাকাণ্ড ও নির্যাতন যদি রাখাইনে বন্ধ করা না হয়, তবে আরাকান রাখাইন জনগোষ্ঠীর অচিরেই পৃথিবীতে কে বিলুপ্তি ঘটবে।

 গতকাল দুপুরে তাপদাহ উপেক্ষা করে সকাল থেকে বাংলাদেশি রাখাইনরা লেখা টি শার্ট ও ব্যানার  ও পিছনে স্টপ জেনোসাইড লিখে প্রতিবাদে মুখর করে তুলে শাহবাগ চত্বর।

ড ব্লিউ বি বি ও / বে অব বেঙ্গল নিউজ / bay of bengal news / ঢাকা