বঙ্গবন্ধুর খুনিদের মুক্তিযোদ্ধা খেতাব বাতিল

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করা হয় ১৫ আগস্ট ১৯৭৫ সালে। এই হত্যায় সরাসরি জড়িত এবং দেশের আদালতে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড রায় পাওয়া চার আত্মস্বীকৃত বঙ্গবন্ধুর খুনিদের “মুক্তিযোদ্ধা” খেতাব বাতিল করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।
বঙ্গবন্ধুর খুনিদের মুক্তিযোদ্ধা খেতাব বাতিল

রোববার (৬ জুন) বিকেলে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপসচিব রথীন্দ্র নাথ দত্তের স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে।

খেতাব খোয়ানো এই ৪ জন হলেন: নায়েক সুবেদার মোসলেম উদ্দিন খান (বীর প্রতীক গেজেট নং-৩২৯), লে. কর্নেল শরিফুল হক ডালিম (বীর উত্তম গেজেট নং- ২৫), লে. এ এম রাশেদ চৌধুরী (বীর প্রতীক গেজেট নং-২৬৭) ও লে. কর্নেল এস এইচ এম এইচ এম বি নুর চৌধুরী (বীর বিক্রম গেজেট নং-৯০)।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘এ বিষয়ে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেছেন, ১৯৭৫ সালের কালোরাতে ১৫ই আগস্ট বঙ্গবন্ধুসহ অন্যান্য শহীদদের হত্যা মামলায় আত্মস্বীকৃত ও আদালত কর্তৃক মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ঘৃণ্য এই ৪ জন বঙ্গবন্ধুর খুনির মুক্তিযুদ্ধের বীরত্বসূচক খেতাব থাকা বাঙ্গালী জাতির জন্য লজ্জাজনক। এ গেজেট সেজন্য বাতিল করা হয়েছে।’

চলতি বছরের ৯ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠীত জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) এর ৭২ তম সভায় বঙ্গবন্ধুর খুনি এই ৪ জন খেতাব বাতিলের সুপারিশ করেছিলেন।

“মুক্তিযুদ্ধ” খেতাব বাতিল হওয়ায় খুনি এবং খুনিদের পরিবারের সদস্যরা মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য আর কোনো রাষ্ট্রীয় সুযোগ-সুবিধা পাবেন না।

এর আগে বুধবার (২ জুন) মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চার খুনির রাষ্ট্রীয় “মুক্তিযুদ্ধা” খেতাব ও পদক বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

তিনি জানান, এ বিষয়ে গেজেট প্রকাশ করলে সাংবাদিকরা পাবেন বলে জানান তিনি। এর আগে মন্ত্রী কোনো মন্তব্য করতে চান না।

bay of bengal news / বে অব বেঙ্গল নিউজ