বহিস্কৃত নেত্রী পাপিয়া দম্পতি ২৭ বছরের কারাদণ্ড

অস্ত্র মামলায় যুব মহিলা লীগের বহিস্কৃত নেত্রী পাপিয়া ও তার স্বামী সুমন চৌধুরীকে 27 বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত। ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালত দুটি ধারায় এই রায় দেন।

বহিস্কৃত নেত্রী পাপিয়া দম্পতি ২৭ বছরের কারাদণ্ড
ছবি: বহিস্কৃত নেত্রী পাপিয়া

রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে আপিল করার কথা জানিয়েছে আসামিপক্ষ।আদালত তাদের পর্যবেক্ষণ ও বলেন তাদের রাজনৈতিক কর্মী বলা যায়না তারা দেশের জন্য বিপদজনক।

এই বছর ফেব্রুয়ারিতে শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে যুব মহিলা লীগের বহিস্কৃত নেত্রী পাপিয়া কে গ্রেপ্তার করে র্যাব। এরপরে পরদিন রেপ তার ইন্দিরা রোডের বাসায় অভিযান চালিয়ে অস্ত্র উদ্ধার করেন। স্বামীসহ তাদের দুই জনের বিরুদ্ধে মামলা হয় শেরেবাংলা নগর থানায়।

কয়েক দফা রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদের পর অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা। অভিযোগ গঠন হয় 23 আগস্ট। দেড় মাসেরও কম সময়ের যুক্তিতর্ক শেষ হলে, পাপিয়া দম্পতি কে অস্ত্র আইনের দুটি ধারায় 20 বছর ও সাত বছর করে কারাদণ্ড দেন মহানগর দায়রা বিচারক কেএম ইমরুল কায়েস। পর্যবেক্ষণে আদালত বলেন আসামিরা রাজনীতির সাথে যুক্ত থাকলেও তা ছিল নিজের স্বার্থে, বরং এরা দেশের জন্য বিপদজনক।

এ ব্যাপারে মহানগর পিপি আব্দুল্লাহ আবু সাংবাদিকদের বলেন, এই মামলার সাজা হচ্ছে যাবত জীবন। কিন্তু তারা যেহেতু দম্পতি আদালত ব্যাপারটি অনুনয় করেছেন এবং তাদেরকে 27 বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন।

আসামিপক্ষের উকিলদের দাবি মামলায় ত্রুটি থাকা সত্ত্বেও এ ধরনের সাজা দেওয়া হয়েছে। তারা এই রায়ে সন্তুষ্ট নয় তারা আপিল করবেন বলে জানান।

বে অব বেঙ্গল নিউজ - Bay of Bengal News

বে অব বেঙ্গল নিউজ