মামলায় আটকা পড়লো অস্ট্রেলিয়ার নিউজ চ্যানেল

মামলায় আটকা পড়লো অস্ট্রেলিয়ার নিউজ চ্যানেল

এক শিশু অপহরণকারী হিসাবে ভুলে ছবি প্রকাশ করাই অস্ট্রেলিয়ার বড় চ্যানেল গুলোর একটির বিরুদ্ধে মামলা দায়র করেন এক ব্যাক্তি।

১৮ দিন ধরে নিখোঁজ থাকার পর ৩ নভেম্বর অস্ট্রেলিয়ার পশ্চিমাঞ্চলীয় একটি দুর্গম এলাকা থেকে চার বছর বয়সী ক্লিও স্মিথ নামের ওই শিশুকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। পুলিশ তেরেনস ক্যালি নামের একজনকে এ ঘটনায় গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারের ঘটনায় কয়েক ঘণ্টা পর চ্যানেল সেভেন নেটওয়ার্ক অভিযুক্ত ব্যক্তির ছবি হিসেবে ভুল করে টেরেন্স ফ্লাওয়ার নামের এক আদিবাসীর ছবি প্রকাশ করে।

টেরেন্সের আইনজীবীদের ভাষ্য, এই শিশু অপহরণের ঘটনায় তাঁকে ভুল করে মূল সন্দেহভাজন হিসেবে প্রচার করার মধ্য দিয়ে তাঁর চরিত্র ও মর্যাদাহানি করা হয়েছে।

জানা গেছে, ক্লিও উদ্ধারের পর তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে সংবাদ চ্যানেলটি ফেসবুক থেকে ফ্লাওয়ারের চারটি ছবি নেয়। অথচ এ জন্য তাঁর কাছ থেকে কোনো অনুমতি নেয়নি। ছবিতে ফ্লাওয়ার তাঁর মায়ের নামের প্রথম অংশ ক্যালি ব্যবহার করেছেন।

চ্যানেলটি এরপর এসব ছবি বিভিন্ন সম্প্রচারমাধ্যম, একটি অনলাইন সংবাদমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করে। সেখানে তারা ফ্লাওয়ারকে নিয়ে সংবাদ শিরোনাম করে ‘পিকচারড: দ্য ম্যান অ্যাকুউজড অব অ্যাবডাকটিং ক্লিও স্মিথ।’

সেভেন নেটওয়ার্কের প্রকাশ করা ছবি ছিল ওই ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তির প্রথম ছবি। তবে সেদিনই চ্যানেলটি তাদের ভুল বুঝতে পারে ও অনতিবিলম্বে সরিয়ে নেয়। এ জন্য তারা পরের দিন অনলাইনে ও সম্প্রচারমাধ্যমে ক্ষমাও চায়।

চ্যানেলটি বলেছে, ‘অপহরণের ঘটনার সঙ্গে সদ্য বাবা হওয়া ফ্লাওয়ারের কোনো সম্পর্ক নেই এবং তাঁর ফেসবুক ছবি ব্যবহার করা উচিত হয়নি।’কিন্তু ফ্লাওয়ারের আইনজীবীরা বলেন, এই ছবি প্রকাশ করে তাঁর (ফ্লাওয়ার) ও তাঁর পরিবারের ভীষণভাবে মানহানি করা হয়েছে। সেভেন নেটওয়ার্ক এই ছবি প্রকাশের মধ্য দিয়ে পুরো জাতি ও বিশ্বের মানুষের কাছে ফ্লাওয়ারকে ‘ঘৃণ্য মানুষ’ হিসেবে পরিচিত করেছে। এ কারণে তিনি আতঙ্কিত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁকে হাসপাতালেও যেতে হয়েছে।

এটি ফ্লাওয়ার ও তাঁর পরিবারের জন্য খুবই উদ্বেগের বিষয় যে এমন একটি বড় গণমাধ্যম নির্ভুলতার বিষয়টি নিশ্চিত না হয়েই এত বড় ভুল করেছে। অপহরণের দায়ে ক্যালি এখন অভিযুক্ত। আগামী ডিসেম্বরে তাঁকে আদালতের মুখোমুখি করার কথা রয়েছে।

সম্প্রতি পরিবারের সঙ্গে কোয়াবা ব্লোহোলস ক্যাম্প গ্রাউন্ডে ছুটি কাটাতে গিয়ে নিখোঁজ হয় চার বছর বয়সী অস্ট্রেলীয় শিশু ক্লিও। গত ১৬ অক্টোবর দিবাগত রাত দেড়টা থেকে ভোর ছয়টার ভেতর নিখোঁজ হয় সে। ক্লিও তার ছোট বোনের দোলনার পাশে থাকা এয়ার ম্যাট্রেসের ওপর ঘুমাচ্ছিল।

আর ক্লিওর মা তাঁবুর অপর একটি কক্ষে ঘুমাচ্ছিলেন। সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর মেয়ের কক্ষে গিয়ে দেখেন দরজা খোলা, ক্লিও নেই। তাকে খুঁজতে জোরেশোরে অভিযান শুরু হয়। স্থল, সমুদ্র ও আকাশপথে চালানো হয় অভিযান। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ পাঠানো হয়। এমনকি তার সন্ধান পেতে ১০ লাখ অস্ট্রেলীয় ডলার পুরস্কারও ঘোষণা করা হয়েছিল।

বে অব বেঙ্গল নিউজ - Bay of Bengal News

বে অব বেঙ্গল নিউজ