জাতীয়সকল সংবাদ

সিলেটের রায়হান হত্যার ঘটনায় পুলিশ সদস্যের ৫ দিনের রিমান্ড

সিলেটের রায়হান হত্যার ঘটনায় কনস্টেবল টিটু চন্দ্র দাসের পাঁচদিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। তবে এখনো পলাতক প্রধান অভিযুক্ত এসআই আকবর।

রায়হান হত্যা
চিত্র: পুলিশি নির্যাতনে নিহত রায়হান।

নিহত রায়হানের বাড়িতে গিয়ে বিচার নিশ্চিতের আশ্বাস দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন ব্যবসায়ীরা। এ সময় তারা ধাওয়া করে পুলিশের একটি গাড়িকে।

পুলিশের নির্যাতনে রায়হানের মৃত্যুর প্রতিবাদে উত্তাল সিলেট শহরের কোর্টপয়েন্ট এলাকা। ২০ অক্টোবর মঙ্গলবার সকালে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেন জেলার স্থায়ী ব্যবসায়ী ও আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীরা। এ সময় পুলিশের একটি গাড়ি ঘটনাস্থলে আসলে ধাওয়া দেই বিক্ষোভকারীরা।

বিক্ষোভকারীদের মধ্যে কয়েকজন বলেন, তাদের দাবি যে পুলিশ সদস্যরা এর সাথে জড়িত তারা তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান। এছাড়া তারা আকবরের ফাঁসি চান এবং তার সাথে জড়িত সকলের শাস্তি চান বলেও বলেন বিক্ষোভকারীরা।

রায়হানের বাড়িতে গিয়ে স্বজনদের সাথে দেখা করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন । এসময় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক বিচারের আশ্বাস দেন তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন গণমাধ্যমকে বলেন, এ ব্যাপারে বিভিন্ন সরকারি প্রতিরক্ষা বাহিনী পলাতক আসামি কে ধরার জন্য কাজ করছে।

এদিকে পুলিশ লাইন্স থেকে গ্রেপ্তারের পর কনস্টেবল টিটু চান্দ্র দাসকে সিলেট অতিরিক্ত চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে হাজির করে পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। এইসময় সাতদিনের রিমান্ড চাইলে পাঁচদিনের মঞ্জুর করেন আদালত। তবে এখনো পলাতক রয়েছে অভিযুক্ত এসআই আকবর।

এছাড়া রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী খোকন কুমার দত্ত গণমাধ্যমকে বলেন, এই চিন্তায় নাটকটি কি সেই সম্পর্কে জ্ঞাত হওয়া সহ বিভিন্ন বিষয়ে জানার জন্য ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

উল্লেখ্য গত ১১-ই অক্টোবর ছিনতাইকারীর অভিযোগে রায়হানকে ধরে নিয়ে যায় বঙ্গ বাজার ফাঁড়ি পুলিশ। সেখানেই চালানো হয় নির্যাতন। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পর মৃত্যু হয় রায়হানের।

ওয়াইএইচ / বে অব বেঙ্গল নিউজ / Bay of Bengal news