জাতীয়সকল সংবাদ

পার্লামেন্ট সেশন এ না থাকায় ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে অধ্যাদেশ জারি করে দিয়েছি- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ধর্ষণকারীরা পশুর চেয়েও অধম। তাই ধর্ষণের অপরাধে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান করা হয়েছে। সকালে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবসেরঅনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিং এ এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় সবাইকে গাছ লাগানোর আহ্বান জানান তিনি।

 ছবি: শেখ হাসিনা (সংগৃহীত)

 চলতি বছর কয়েক দফা বন্যা ঘূর্ণিঝড় আম্ফান মোকাবেলার পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস।  উপলক্ষে রাজধানীর  ওসমানী মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে দুর্যোগ মোকাবেলায় সরকারের নানা পদক্ষেপ তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী,।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন,  আজকে আমরা যেকোনো দুর্যোগ মোকাবেলায় সারাবিশ্বে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পেরেছি।  আওয়ামী লীগ সবসময় বাংলাদেশের মানুষের পাশে আছে। অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল কারীরা অতীতের দুর্যোগ থেকে জনগণকে রক্ষা করতে পারেনি। আমাদের একটা কথা মাথায় রাখতে হবে আমাদের দেশে বন্যা হবে ঘূর্ণিঝড় হবে জলোচ্ছ্বাস হবে ভূমিকম্প হবে অগ্নিকাণ্ড হবে নদী ভাঙ্গন হবে।  প্রতিনিয়তই শুক্র প্রতিহত করে আমাদের বাঁচতে হবে।

 এ সময় প্রধানমন্ত্রী ধর্ষণের আইন সংশোধনের  নিয়ে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ধর্ষণে এমন একটি জিনিস যেখানে মানুষ পশু হয়ে যায়, এক নির্মম পাশবিকতা যে কারণে আমাদের মেয়েরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সেজন্য আমরা এই আইনটি সংশোধন করে ধর্ষণ করলে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দিয়ে সংসদে আইন পাস করে দিয়েছি।  যেহেতু অধ্যাদেশ’ জারি করে দিচ্ছি।  সবাইকে আহবান করব প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় ব্যাপকহারে বৃক্ষ রোপন করার জন্য। 

ডব্লিউ বি বি ও / বে অব বেঙ্গল নিউজ / bay of bengal news