চট্টগ্রামরাজনীতিসকল সংবাদ

দাবী আদায়ে শ্রমিকদেরকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবেঃ আ জ ম নাছির উদ্দীন

দাবী আদায়ে শ্রমিকদেরকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে – আ জ ম নাছির উদ্দীন

আজ ১২ অক্টোবর, সোমবার সকালে নগরীর দারুল ফজল মার্কেট চত্বরে জাতীয় শ্রমিক লীগের ৫১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে চট্টগ্রাম মহানগরী জাতীয় শ্রমিক লীগ অন্তর্ভুক্ত বেসিক ইউনিয়ন সমন্বয় পরিষদের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়।
প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের মতো শ্রমনিবিড় উন্নয়নশীল দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে শ্রমিক ও মালিকের মধ্যে পারস্পরিক সমঝোতা ও হৃদ্যতা বজায় রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আজীবন মেহনতি মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য সংগ্রাম করে গেছেন।


সভায় প্রধান আলোচকের বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, শ্রমিক কর্মচারীর অধিকার আদায়ে সকলকে ঐক্যবদ্ধ শক্তিতে বলীয়ান হতে হবে। শ্রমিকদের ঐক্যবদ্ধ শক্তির কাছে কোন অপশক্তি মাথা তুলে দাঁড়াতে পারবে না। শ্রমিকের ঘামে ভেজা শ্রমের উপর দাঁড়িয়ে দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের অর্থনীতির মূল কারিগর আমাদের শ্রমিক সমাজ। এই শ্রমিকের উন্নত সুন্দর জীবন নিশ্চিতে সরকার নানামুখী কাজ করে যাচ্ছে।


বিশেষ অতিথি জাতীয় শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শফর আলী বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নিজের হাতে গড়া সংগঠন জাতীয় শ্রমিক লীগ। ১৯৬৯ সালের ১২ অক্টোবর প্রতিষ্ঠালগ্ন হতে ৬৯-এর গণ আন্দোলন ৭১-এর মহান মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশের শ্রমিক সমাজ বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে সক্রিয় অংশগ্রহণ করে অগ্রনী ভূমিকা পালন করেছিলেন এবং ৩০ হাজার শ্রমিক কর্মচারী নেতৃবৃন্দ শহীদ হয়েছেন। তারই ধারাবাহিকতায় স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন সহ অদ্যাবধি শ্রমিকের ন্যায্য দাবি আদায়ে মেহনতি মানুষের একমাত্র মুক্তির সনদ এই জাতীয় শ্রমিক লীগ। চতুর্থ শিল্পায়নের বিশ্বে চট্টগ্রাম মহানগরে অঞ্চলে কর্মরত শ্রমিক কর্মচারীদের ন্যায্য দাবি আদায়ে যোগ্য নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার কোন বিকল্প নেই।


চট্টগ্রাম জাতীয় শ্রমিক লীগ অন্তর্ভূক্ত বেসিক ইউনিয়ন সমন্বয় পরিষদের আহ্বায়ক মুহাম্মদ এয়াকুবের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা, কেক কাটা ও আনন্দ র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়।

এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, সাবেক প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, জাতীয় শ্রমিক লীগ পতেঙ্গা হালিশহর শিল্পাঞ্চল শাখার সভাপতি মো. ইউনুছ, জাতীয় শ্রমিক লীগ পাহাড়তলী শিল্পাঞ্চল শাখার সভাপতি মোহাম্মদ শফি বাঙালী, জাতীয় শ্রমিক লীগ কালুরঘাট শিল্পাঞ্চল শাখার সভাপতি মো. আলী আকবর, জাতীয় শ্রমিক লীগ নাসিরাবাদ শিল্পাঞ্চল শাখার সভাপতি মো. হাসান, জাতীয় রেলওয়ে শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, নগর যুবলীগ নেতা ৩৩নং ফিরিঙ্গীবাজার ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, চট্টগ্রাম মহানগর মহিলা শ্রমিক লীগের সভানেত্রী নাসরিন আক্তার নাহিদা, চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহারকারী শ্রমিক লীগ (সিবিএ) সভাপতি মীর নওশাদ, সিনিয়র সভাপতি মো. হাসান, চট্টগ্রাম ওয়াসা শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন (সিবিএ) সভাপতি এনায়েত উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক মো. তাজুল ইসলাম, জাতীয় বিদ্যুৎ শ্রমিক লীগ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার প্রচার সম্পাদক মো. বেলাল।

সভা সঞ্চালনা করেন বৃহত্তর চট্টগ্রাম সড়ক পরিবহন শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সদস্যসচিব উজ্জ্বল বিশ্বাস ও চট্টগ্রাম দোকান কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি মো. আলমগীর। এতে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগরী জাতীয় শ্রমিক লীগ অন্তর্ভুক্ত বেসিক ইউনিয়ন সমন্বয় পরিষদের সদস্যসচিব মো. মিরন হোসেন (মিলন), সদরঘাট ঘাট গুদাম শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ইদ্রিচ হাওলাদার (লাদেন), কোষ্টারেজ ঠিকাদার শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. আলমগীর, কার্যকরী সভাপতি মো. মহিউদ্দিন, চট্টগ্রাম দোকান কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন, চট্টগ্রাম দোকান শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর বেগ, যমুনা অয়েল কোম্পানী লেবার ইউনিয়ন (সিবিএ)-এর দপ্তর সম্পাদক মো. নাসির উদ্দিন, মো. কাশেম মোল্লা সবুজ, চট্টগ্রাম ফুটপাত হকার্স সমিতির সভাপতি নুর আলম লেদু, বিপনী বিতান দোকান কর্মচারী শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মো. জাহাঙ্গীর, তামাকুমন্ডী লেইন দোকান কর্মচারী সমিতির সভাপতি মো. বখতেয়ার, সাধারণ সম্পাদক মো. সালাউদ্দিন, চট্টগ্রাম হকার্স লীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ রনি, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ শ্রমিক লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মো. ওসমান গণি, কৃষি ব্যাংক সিবিএ-এর সভাপতি মো. আলী আকবর, চট্টগ্রাম পাদুকা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ইয়াছিন, চট্টগ্রাম মহানগর ভবন ভাঙা, লোহা কাটা শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. ওমর ফারুক, চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় শ্রমিক লীগের সাবেক সভাপতি কামাল উদ্দিন চৌধুরী, মো. ওমর আলী মিয়া সর্দার, নগর ছাত্রলীগের সাবেক সহ সম্পাদক ইয়াছির আরাফাত, চট্টগ্রাম সম্মিলিত হকার্স ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম ভূইয়া, বাকলিয়া হকার্স লীগের সভাপতি মো. এরশাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. সোহেল, চট্টগ্রাম ইউএসটিসি শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন (সিবিএ) সভাপতি মো. মানিক মিয়া, টেরীবাজার আন্দরকিল্লা হকার্স সমিতির সাাধারণ সম্পাদক লোকমান হাকিম, বাকলিয়া মৎস্যশিকারী জেলে শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ইদ্রিস মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক আহমদ উল্লাহ কালু, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার কার্যকরী সভাপতি মো. বেলাল, সহ সভাপতি মো. আলী আকবর, চট্টগ্রাম নির্মাণ শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. সেলিম, সাধারণ সম্পাদক মো. ইকবাল, ডবলমুরিং থানা শ্রমিক লীগ আঞ্চলিক কমিটির আহ্বায়ক মুজিবুর রহমান, যুগ্ম আহ্বায়ক, জাহাঙ্গীর বৈরাগী, মো. দেলোয়ার, মো. দিদার, মো. মঈনউদ্দিন, মো. ইসহাক, ডবলমুরিং থানা জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. হারুণ, কোতোয়ালী থানা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিকু, যুগ্ম সম্পাদক মো. সৈয়দ, মো. জসিম উদ্দিন সিকদার, মো. আলী, আকবর শাহ থানা শ্রমিক লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর, মো. ইলিয়াস, মো. রফিক, বায়েজিদ থানা শ্রমিক লীগের সভাপতি আজম লিংকন, সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ দাশ মাটি, চাক্তাই ট্রাক শ্রমিক কল্যাণ সমিতির সভাপতি মো. বেলাল, ইপিজেড থানা হকার্স ফেডারেশন অঞ্চল কমিটির সভাপতি মো. ডালিম, সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন, চট্টগ্রাম হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্ট শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন হকার্স সমিতির কার্যকরি সদস্য মো. সোহেল, মো. মনজু, চট্টগ্রাম সম্মিলিত হকার্স ফেডারেশন কার্যকরী কমিটির সদস্য মো. আনোয়ার, আব্দুর রাহিমসহ বেসিক ইউনিয়ন, সিবিএ ও নন সিবিএ নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

বে অব বেঙ্গল নিউজ/ BAY OF BENGAL NEWS